• শনিবার   ২৪ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৯ ১৪২৭

  • || ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ষাট গম্বুজ বার্তা
৯০

শরণখোলায় ৯৯৯ এ ফোন করে প্রাণে বাঁচলেন স্বামী-স্ত্রী

ষাট গম্বুজ টাইমস

প্রকাশিত: ২০ জুলাই ২০২০  

বাগেরহাটের শরণখোলায় সম্পত্বি বিরোধকে কেন্দ্র করে ঘুমিয়ে থাকা স্বামী-স্ত্রীর উপর হামলা চালিয়ে তাদের বসত ঘর গুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। গত শনিবার গভীর রাতে সুন্দরবন সংলগ্ন উপজেলার শরণখোলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময়  গৃহকর্তী শামসুন্নাহার  ৯৯৯ এ ফোন করে প্রাণে বাঁচার আকুতি জানান।  খবর পেয়ে শরণখোলা থানা পুলিশ ওই রাতে ঘটনাস্থলে অভিযান চালালে হামলা কারীরা পালিয়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার ও এলাকাবাসীর সূত্র জানায়, জমিজমা নিয়ে বিরোধের জেরে শরণখোলা গ্রামের বাসিন্দা কৃষক আ. মালেক মুন্সীর ওপর একই ইউনিয়নের বাসিন্দা বাচ্চু মীর ও তার ছেলে রুমান মীরের সহযোগীতায় গত শনিবের গভীর রাতে করিম বয়াতী, সাইয়েদ বয়াতী ,আব্বাস জোমাদ্দার ও নজরুল  শিকদারের নেতৃত্বে ১৫/২০ জনের একটি দল হামলা চালায়।

ভুক্তভোগী মালেকের স্ত্রী শামসুন্নাহার (৬৫) বলেন, প্রতিদিনের মতো রাতের খাবার শেষে আমরা আমরা ঘরে ঘুমিয়ে ছিলাম। হঠাৎ ঘুম ভেংঙ্গে গেলে বাহিরে ব্যাপক ভাংচুরের শব্দ। এ সময় আমরা ডাকাত বলে চিৎকার দিলে  সাইয়েদ ও করিমসহ কয়েক জন ঘরের দরজা ভেংঙ্গে ফেলে আমার স্বামীকে মারপিট আরম্ভ করে এবং বারান্দায় ঘুমিয়ে থাকা নাতি শিমুল (১৮) কে তুলে নিয়ে বাহিরে ছুড়ে ফেলে দেয়। ওই সময় স্বামীকে  বাঁচাতে গেলে আমাকেও মারপিট করে।

এক পর্যায়ে জীবন বাঁচাতে ৯৯৯ এ ফোন করি, ঘণ্টা খানেক পর শরণখোলা থানা পুলিশের একটি দল ওই রাতে এলাকায় আসলে আমরা প্রাণে বেঁচে যাই।  কিন্তু ততক্ষণে সকল মালামাল লুট করে ঘরটিসহ বাড়ির গাছপালা সম্পূর্ণ মাটির সাথে মিশিয়ে দেন হামলাকারীরা। এ ঘটনার পর প্রতিপক্ষরা  কেউ এলাকায় না থাকার কারণে তাদের বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি । এ ছাড়া শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এস কে আব্দুল্লাহ- আল-সাইদ জানান, ক্ষতিগ্রস্থ ওই কৃষক পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পাওয়া গেলে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হবে।

ষাট গম্বুজ বার্তা
ষাট গম্বুজ বার্তা
বাগেরহাট বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর