• সোমবার   ১০ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭

  • || ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

ষাট গম্বুজ বার্তা
১৯

সাইনোসাইটিস থেকে মুক্তি মিলবে ঘরোয়া তিন উপায়ে

ষাট গম্বুজ টাইমস

প্রকাশিত: ৩০ জুলাই ২০২০  

প্রচণ্ড মাথাব্যথাসহ সর্দি লেগে থাকার সমস্যায় ভুগতে হয় সাইনোসাইটিস হলে। সাইনাস ইনফেকশনের সমস্যাটি প্রবল মাথাব্যথার অন্যতম একটি বড় কারণ। ভাইরাসজনিত এই সমস্যাটি ব্যাকটেরিয়া কিংবা ফাংগাসের ফলেও দেখা দিতে পারে।  

সাধারণত অতিরিক্ত ঠাণ্ডার সমস্যা থেকে সাইনাসের ব্যথার উৎপত্তি। তারপরও দীর্ঘদিন সমস্যাটি রয়ে যায়। মাথাব্যথাসহ, বন্ধ নাকের সমস্যা, কাশি, চোখ ফোলাভাব, খাবারের গন্ধ না পাওয়ার মতো লক্ষণগুলোও দেখা দিতে পারে সাইনোসাইটিসের জন্য। ঘরোয়া উপায়েই এই সমস্যা সমাধান করা সম্ভব। জেনে রাখুন ঘরোয়া পদ্ধতিগুলো- 

> সাইনাসের সমস্যা হলে গরম ভাপ নেয়ার বিকল্প নেই। জোরে জোরে শ্বাস নিয়ে গরম ভাপ টেনে নেয়ার পদ্ধতিটি সাইনাসের ব্যথা কমাতে সবচেয়ে বেশি কার্যকর। এর ফলে সহজেই নাসারন্ধ্র খুলে যায়, যা ব্যথা কমিয়ে আনে। সাইনাসের তীব্র ব্যথা কমাতে প্রতিদিন ২ থেকে ৩ বার এই পদ্ধতির পুনরাবৃত্তি করতে হবে।

> গরম তোয়ালের ভাপও নেয়া যেতে পারে। যদি গরম পানির ভাপ নিতে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ না করেন তবে বিকল্প পদ্ধতিও রয়েছে। গরম ভাপ নেয়ার আরেকটি পদ্ধতি হলো গরম তোয়ালের ভাপ নেয়া। ছোট তোয়ালে গরম পানিতে ভিজিয়ে সহ্য করার মতো অবস্থায় মুখের উপরে রাখুন। পাঁচ মিনিট এভাবে রেখে তোয়ালে সরিয়ে নিতে হবে। পুনরায় গরম পানিতে চুবিয়ে এমন নিয়মের পুনরাবৃত্তি করুন।

> সাইনাসের সমস্যা থেকে বাঁচতে ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করতে পারেন। ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েলে থাকা মনোটারপেনাস, জিরানিওলস, লাইনেলুল নামক প্রদাহ বিরোধী ও অ্যান্টিসেপটিক উপাদান সাইনোসাইটিসের বিরুদ্ধে কাজ করে বলে জানাচ্ছে ২০১৩ সালের একটি গবেষণার তথ্য। 

গরম এক কাপ পানিতে ৩-৪ ফোঁটা ল্যাভেন্ডার এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে পানির ভাপ নাকের সাহায্যে টেনে নিতে হবে। এছাড়া তুলার বলে এই এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নাকের কাছে রাখুন। দেখবেন সাইনাসের সমস্যা থেকে দ্রুত মুক্তি মিলবে। 

ষাট গম্বুজ বার্তা
ষাট গম্বুজ বার্তা
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর