• বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ২১ ১৪২৯

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ষাট গম্বুজ বার্তা

খালেদা-তারেক বাদ, বিএনপির নেতৃত্বে অলি-বি.চৌধুরী!

ষাট গম্বুজ টাইমস

প্রকাশিত: ৭ সেপ্টেম্বর ২০২২  

দীর্ঘ ১৫ বছর ক্ষমতার বাইরে রয়েছে রাজপথের বিরোধীদল খ্যাত বিএনপি। এর দায়ভার শীর্ষ দুই নেতার উপর চাপাতে চাচ্ছেন দলটির সিনিয়র নেতারা। এজন্য দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে শীর্ষ পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের একাংশ। তবে অপর একটি অংশ তাদের পক্ষে রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র।

জানা যায়, ২০০৯, ১৪ ও ১৮ এর নির্বাচনে ব্যর্থতায় দীর্ঘ ১৫ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকা বিএনপির শীর্ষ নেতাদের মধ্যে বড় ধরণের বিরোধ দেখা দিয়েছে, যে কারণে বিএনপির সিনিয়র নেতারা তিন ভাগে বিভক্ত হয়ে পড়েছেন। একটি অংশ বেগম জিয়াকে দলের শীর্ষ নেতা হিসেবেই রাখতে চান। আর অপর অংশ চাচ্ছেন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে পূর্ণ নেতৃত্বে আনতে। তবে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের বড় একটি অংশ চাচ্ছেন খালেদা-তারেককে বাদ দিয়ে দলকে নতুন ভাবে সাজাতে। সেক্ষেত্রে বিএনপি থেকে বেরিয়ে যাওয়া নেতাদের আবারও দলে ফিরিয়ে আনার পক্ষে তারা।

বিএনপির সিনিয়র নেতারা বলছেন, ২০০১-০৬ সালে বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের অতি কর্তৃত্বের কারণে দল ছেড়েছেন সাবেক প্রেসিডেন্ট একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, কর্নেল অলি আহমেদ, ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা, মিজানুর রহমান সিনহাসহ অনেকেই। দল ছাড়ার আগে সব ধরণের দুর্যোগে এই নেতাদের পরামর্শেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হতো। এমনকি বেগম জিয়াকে রাজনীতিতেও নিয়ে এসেছেন তারা। তাই এই কঠিন পরিস্থিতিতে কর্নেল অলি, বদরুদ্দোজাসহ সিনিয়র নেতাদের দলে ফিরিয়ে শীর্ষ নেতৃত্বে নিয়ে আসা প্রয়োজন বলেও মনে করছেন সিনিয়র নেতারা।

সূত্র বলছে, বিএনপির সিনিয়র নেতারা দল পুর্নগঠনে সাবেক নেতাদের দলে ফেরানোর তৎপরতা ইতোমধ্যেই শুরু করেছেন। আগামী জানুয়ারি নাগাদ বিএনপিতে ফিরতে পারেন একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী (বি.চৌধুরী) ও কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ। সেক্ষেত্রে নির্বাচনের আগেই বিএনপির নতুন চেয়ারম্যান হতে পারেন বি.চৌধুরী। আর মহাসচিব পদে দেখা যেতে পারে কর্নেল অলি আহমেদকে।

এ বিষয়ে বিএনপির স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নির্বাচন ও আন্দোলনকে সামনে রেখে বিএনপি পুর্নগঠনের কাজ শুরু হয়েছে। যারা ইতোপূর্বে দল ছেড়ে চলে গেছেন তাদেরকেও দলে ফেরানোর চেষ্টা চলছে। তবে দলের শীর্ষ নেতৃত্বের পরিবর্তনের বিষয়টি তিনি স্বীকার করেননি।

ষাট গম্বুজ বার্তা
ষাট গম্বুজ বার্তা