• রোববার   ২৩ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ১০ ১৪২৮

  • || ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ষাট গম্বুজ বার্তা

আলো স্বল্পতায় দিন শেষ, বাংলাদেশের সাফল্য ২ উইকেট

ষাট গম্বুজ টাইমস

প্রকাশিত: ৪ ডিসেম্বর ২০২১  

দ্বিতীয় সেশন তথা চা পানের বিরতির পর আলো স্বল্পতায় মাঠে আর একটি বলও গড়ায়নি। মাঠের আম্পায়াররা বিকেল ৪টা ০৬ মিনিটে ভেন্যু পরিদর্শন শেষে দিনের খেলা শেষ ঘোষণা করেন। এর আগে ঘূর্ণিঝড় জাওয়াদ এর প্রভাবে সকাল থেকেই ঢাকার আকাশ ছিল মেঘলা। ম্যাচ শুরুর পর থেকেই ফ্লাডলাইটের আলোয় খেলা গড়ায়। মধ্যাহ্ন বিরতির পর বৃষ্টির কারণে কিছুক্ষণ খেলা বন্ধ থাকে।

শনিবার (০৪ ডিসেম্বর) মিরপুর শেরে বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয়টিতে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে পাকিস্তান। যেখানে প্রথম দিন শেষে ৫৭ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে ১৬১ রানের সংগ্রহ পায় দলটি। অধিনায়ক বাবর আজম ৯৯ বলে ৭টি চার ও এক ছক্কায় ৬০ রানে এবং আজহার ১১২ বলে ৪টি চারে ৩৬ রানে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়েন।

বাংলাদেশের সাফল্যের ২ উইকেটই তুলে নেন স্পিনার তাইজুল ইসলাম।

১-০ ব্যবধানে পিছিয়ে থাকা এই টেস্ট সিরিজ বাঁচানোর মিশনে শুরুতে ফিল্ডিং করতে হয় মমিনুলবাহিনীকে। স্বাগতিক একাদশে ছিল অনেক চমক। বাংলাদেশের ৯৯তম টেস্টে অভিষেক হয়েছে মাহমুদুল হাসান জয়ের। একাদশে ফেরেন সাকিব আল হাসান ও খালেদ হোসেনও। দল থেকে বাদ পড়েন আবু জায়েদ রাহি, সাইফ হাসান ও ইয়াসির আলী রাব্বি।

সকালের সুইং ব্যবহার করে দুই পেসার এবাদত ও খালেদের বোলিংয়ের শুরুটা হয় আঁটসাঁট। কিন্তু ধীরে ধীরে সেট হয়ে হাত খুলতে শুরু করেন দুই পাকিস্তানি ওপেনার আবিদ ও শফিক। দুজনের জুটি ৫০ পেরিয়ে যায়। কিন্তু তাদের বেশিদূর যেতে দেননি তাইজুল। ১৯তম ওভারে সেট হয়ে যাওয়া দুই ব্যাটারের জুটি ভাঙেন তিনি। এই বাঁহাতি স্পিনারের বল শফিকের ব্যাট ও প্যাডকে ফাঁকি দিয়ে স্ট্যাম্প ভেঙে দেয়। ৫০ বল খেলে ২ চার ও ১ ছক্কায় ২৫ রানের ইনিংস খেলে বিদায় নেন শফিক। ৫৯ রানে প্রথম উইকেট হারায় পাকিস্তান।

পাকিস্তানের আরেক ওপেনার আবিদ আলীকেও বেশিদূর যেতে দেননি তাইজুল। বাঁহাতি স্পিনারের বলে কাট করতে গেলে বল আবিদের ব্যাটের কানা ছুঁয়ে স্ট্যাম্পে আঘাত হানে। আগের ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান আবিদ এবার বিদায় নিলেন ৮১ বলে ৬ চারে ৩৯ রান করে। কিন্তু এরপর বাবর জম ও আজহার মিলে দারুণ জুটি গড়েন।  

বৃষ্টির কারণে মিনিট পনেরো খেলা বন্ধ থাকার পর সাকিবের বলে বাবরের ক্যাচ সীমানার কাছাকাছি ফেলে দেন খালেদ। পাকিস্তানি ডানহাতি ব্যাটার তখন ৩৯ রানে ব্যাট করছিলেন। সেই মিস হওয়া ক্যাচটি চার হয়ে যায়। পরের বলেও সাকিবকে চার মারেন বাবর। জীবন পাওয়ার পর বাবর ৭৫ বলে ফিফটি তুলে নেন। পাকিস্তানের অধিনায়ককে যোগ সঙ্গ দিচ্ছেন আজহার আলী। দুজনের জুটিতে ৮০-এর বেশি রান এসে গেছে।

চা বিরতির আগমুহূর্তে ৫৭তম ওভারে আজহার আলীর হাঁকানো একটা বাউন্ডারি আটকাতে গিয়ে বিজ্ঞাপনের বিলবোর্ডের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় খালেদ আহমেদের। তিনি আঘাত পাওয়ায় বদলি হিসেবে ফিল্ডিংয়ে নামেন নাঈম শেখ। দ্বিতীয় সেশনে কোনো উইকেট তুলে নিতে পারেননি বাংলাদেশি বোলাররা।

রোববার (০৪ ডিসেম্বর) দ্বিতীয় দিনের খেলা আধঘণ্টা এগিয়ে সকাল সাড়ে নয়টায় শুরু হবে।

ষাট গম্বুজ বার্তা
ষাট গম্বুজ বার্তা