• সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৩১ ১৪৩১

  • || ০৭ মুহররম ১৪৪৬

ষাট গম্বুজ বার্তা

ছবিটি আমার জীবনে একটি অদ্ভুত পরিবর্তন এনেছে

ষাট গম্বুজ টাইমস

প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০১৯  

আসিফ আকবর গত দুই দশক ধরে সংগীতে নিজের জনপ্রিয়তা একইভাবে ধরে রেখেছেন। মধ্যে কয়েক বছরের বিরতির পর এ তারকার প্রত্যাবর্তনও ছিল রাজকীয়। অডিওতো বটেই, মিউজিক ভিডিওতেও অন্য এক আসিফকে পেয়েছেন শ্রোতা-দর্শক। বিশেষ করে গত তিন বছরে আসিফ মিউজিক ভিডিওতে যে পারফর্ম করেছেন, তা দর্শকদের হৃদয়ে নাড়া দিয়ে গেছে। প্রায় প্রতিটি গানের ভিডিওতেই তিনি পারফর্ম করেছেন অনবদ্যভাবে। তাও আবার ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে দেখা গেছে তাকে। কখনো পুলিশ, কখনো ডন, আবার কখনো পাগল প্রেমিক কিংবা প্রতিশোধ পরায়ণ তরুণ হিসেবে হাজির হয়েছেন দর্শকদের সামনে। বড় বিষয় হলো, এসব গান-ভিডিওতে আসিফকে খুব ভালোভাবে গ্রহণ করেছেন দর্শক।

এদিকে সামনেই চলচ্চিত্রের নায়ক হিসেবে প্রেক্ষাগৃহে আসছেন এ সংগীত তারকা। এরইমধ্যে তার অভিনীত প্রথম মিউজিক্যাল ফিল্ম ‘গহীনের গান’ সেন্সর ছাড়পত্র পেয়েছে।

আসছে ২০শে ডিসেম্বর এটি মুক্তি পাবে। সব মিলিয়ে কেমন আছেন? আসিফ আকবর বলেন, বেশ ভালো। ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে কাটছে সময়। রেকর্ডিং ও শুটিংয়ের ব্যস্ততা চলছে। আর সামনে ‘গহীনের গান’ মুক্তি পাচ্ছে। ছবিটির প্রচারণায়ও ব্যস্ত রয়েছি। ‘গহীনের গান’ আপনার প্রথম অভিনীত ছবি। এটি নিয়ে প্রত্যাশা কেমন? আসিফ আকবর বলেন, আমি সব সময় বলে আসছি, এককথায় ছবিটি জীবনের গল্পই বলবে। এ কারণে এটি নিয়ে প্রত্যাশাও অনেক। এ ছবিটিকে দর্শকদের খুব কাছে পৌঁছে দিতে চাই। আমি ও ছবির কলাকুশলীরা নিজের হাতে এর পোস্টার লাগিয়েছি। ছবিটি দর্শকদের পর্যন্ত পৌঁছাতে যা যা করার আমরা করবো। সত্যি বলতে ‘গহীনের গান’ ছবিটি আমার জীবনে একটি অদ্ভুত পরিবর্তন এনেছে। প্রথম গান ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’র মতো আজকের ‘গহীনের গান’ এ আমি সেই পুরনো আসিফ হয়ে গেছি। তবে আমি চাই এই ছবিটির প্রচার-প্রচারণা মেরিট অনুযায়ী হোক।

কোনো লবিং বা ফেভার চাই না। ‘গহীনের গান’ বাংলা ঢোলের প্রযোজনায় পরিচালনা করেছেন সাদাত হোসাইন। এতে আসিফ আকবর ছাড়াও অভিনয় করেছেন তমা মির্জা, তানজিকা আমিন, তুলনা আল হারুন, আমান রেজা, কাজী আসিফ প্রমুখ। আপনাকে বিভিন্ন মিউজিক ভিডিওতে বিভিন্ন রূপে দর্শক দেখেছেন। এবার নায়ক রূপে দেখবেন। আপনার নিজের কেমন লাগছে? আসিফ আকবর বলেন, বিভিন্ন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ও পরিচালকের চাপে আমি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছি। তারপর যখন দর্শকরা গ্রহণ করলো, তখন বাধ্য হলাম নিয়মিত মিউজিক ভিডিওতে পারফর্ম করতে। তবে এ চাপ আমি ধীরে ধীরে কমাচ্ছি।

আর ‘গহীনের গান’ এ আমার নতুন নয়টি গানও ব্যবহার করা হয়েছে। এখানে যারা কাজ করেছেন তারাও চেষ্টা করেছেন নিজেদের সর্বোচ্চটা দিতে। সত্যি বলতে ব্যাতিক্রমী এ কাজটি করে আমারও ভালো লেগেছে। আর পরিচালক সাদাত হোসাইন বেশ মুন্সিয়ানা দিয়ে ছবিটি তৈরি করেছেন। আমি নিজেও অপেক্ষায় রয়েছি দর্শকরা ছবিটি কেমনভাবে নেন তা দেখার জন্য। আমার বিশ্বাস ভালো লাগবে সবার। এদিকে গত বছর আসিফ আকবরের ১০০টি গান প্রকাশ হয়েছিল। চলতি বছরের প্রথমেই ১৩০টি গানের ঘোষণা দিয়েছিলেন তিনি। কথা অনুযায়ী এরইমধ্যে ১০০টিরও বেশি গান প্রকাশ হয়েছে। বাকি গানগুলো চলতি ডিসেম্বরেই প্রকাশ হওয়ার কথা রয়েছে। নিজের নতুন গান প্রসঙ্গে আসিফ আকবর বলেন, নতুন আরো অনেক গান তৈরি হয়ে আছে। সেগুলোতে কন্ঠ দেবো সামনে। আপাতত ‘গহীনের গান’ নিয়েই ভাবছি। তার ফাঁকে ফাঁকে রেকর্ডিংও চলছে। চলতি ডিসেম্বর তো বটেই, আগামী বছরও গান প্রকাশের ধারা অব্যাহত থাকবে।

ষাট গম্বুজ বার্তা
ষাট গম্বুজ বার্তা