• বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ৬ ১৪৩১

  • || ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

ষাট গম্বুজ বার্তা

ফারিয়া আমাকে খুনের হুমকি দিয়েছে: এক্স হাজবেন্ড পরিচয়ে পোস্ট

ষাট গম্বুজ টাইমস

প্রকাশিত: ২ মে ২০২৩  

ঢাকঢোল পিটিয়ে হারুনুর রশীদ অপুকে বিয়ে করেছিলেন শবনম ফারিয়া। তবে দুই বছরও টেকেনি সেই বিয়ে। এরপর চুপিসারে দ্বিতীয়বারের মতো বিয়ের পিঁড়িতে বসেন তিনি। যদিও দ্বিতীয় স্বামীকে কখনও সামনে আনেননি অভিনেত্রী। সামাজিক মাধ্যমে নানাভাবে ইঙ্গিত দিয়েছেন।

এদিকে কয়েকমাস ধরে শোনা যাচ্ছিল, দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গেও বিচ্ছেদ হয়েছে তার। এ নিয়ে সরাসরি কিছু না বললেও তার স্ট্যাটাসে সহজে অনুমেয়। ফারিয়া লিখেছেন, ‘কিছু মানুষ জীবনে আসে শিক্ষা হয়ে! ২০২১ ও ২০২২ ছিল ভুল মানুষের সঙ্গে সাক্ষাৎ ও কাছাকাছি যাওয়ার বছর। ২০২৩ ভালোর দিকে যাচ্ছে। অপ্রয়োজনীয় ভুয়া লোকজন এমনিতেই দূরে চলে যাচ্ছে! কাছের মানুষ আরও কাছে আসছে। হালকা ও ভালো লাগছে। তরুণদের জন্য একটা উপদেশ, কেউ আপনার সঙ্গে যত ভালো হওয়ার চেষ্টা করুক না কেন, যদি তার কোনোপ্রকার মানসিক সমস্যা (উদ্বেগ ও বিষন্নতা ছাড়া) কিংবা কোনো মাদক সংশ্লিষ্টতা থাকে, সবসময় তার থেকে দূরে থাকবে। তারা ক্ষতিকর। যতদিনে তুমি বুঝবে যে তারা ক্ষতিকর, সেটা অনেক দেরি হয়ে যাবে। সাবধান থাকো।’

এই পোস্টের পর মোহাম্মদ জাহিন খান নামে একজন ফারিয়াকে ট্যাগ করে দীর্ঘ স্ট্যাটাস দেন। সেখানে তিনি নিজেকে অভিনেত্রীর প্রাক্তন স্বামী বলে পরিচয় দেন।

জাহিন লিখেছেন, ‘মাদকাসক্তি, মানসিক রোগ নিয়ে শবনম ফারিয়ার যে পোস্ট, সেটা আমাকে নিয়ে; আমি তার এক্স হাজবেন্ড। আমি সবাইকে অনুরোধ করছি এক পক্ষের কথা শুনে বিচার না করে আমার কথাগুলো শোনার। আমি যুক্তরাষ্ট্রে চাকরি, বন্ধু-বান্ধব নিয়ে ভালোই ছিলাম। এরপর আমি বাংলাদেশি আসি এবং শবনম ফারিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। সব কিছু ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু আমি একটা অপরাধে গ্রেফতার হই, যেটা আসলে আমি করিনি। বন্ধুরা আমাকে ওই মামলায় যুক্ত করে ফেলে। কয়েকমাস কারাগারে থাকার পর আমি জামিন পাই। বলতে ভুলে গেছি, আমি গ্রেফতার হওয়ার আগেই আমরা বিয়ে করেছিলাম।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘যখন আমি জেল থেকে বের হয়ে আসি, তখন থেকেই ফারিয়ার আচরণে পরিবর্তন দেখতে পারি। সে রীতিমতো আমাকে গালাগাল ও মারধর করতো! একটা পর্যায়ে ব্যাপারটা এত বাজে হয়ে যায় যে, আমি কাউকে বলতেও পারিনি। পরে আমি জানতে পারি যে, তার (ফারিয়া) আগের বিয়েটাও এমনই ছিল। এমন জীবন আমি চাইনি, এমন বিয়ে-ভালোবাসা আমি চাইনি, যেখানে একে-অপরের প্রতি কোনো সম্মানবোধ থাকবে না।’

বর্তমানে দেশের বাইরে রয়েছেন জানিয়ে জাহিন বলেছেন, ‘দেশত্যাগ করা ছাড়া আমার কোনো পথ ছিল না। প্রত্যেকটা উপায়ে সে আমার ক্ষতি করতে চেয়েছিল। এমনকি তার প্রভাবশালী বন্ধুদের দিয়ে আমাকে খুনের হুমকি পর্যন্ত দিয়েছে। আমাদের সম্পর্ক চলাকালীন বিষয় নিয়ে আর বেশি কিছু বলতে চাই না। কিন্তু একজন পুরুষের গল্প সবসময় আড়ালেই থেকে যায়।’

এদিকে বিষয়টিকে নিয়ে শবনম ফারিয়া দেশের একটি গণমাধ্যমকে জানান, এটা ফেক অ্যাকাউন্ট। জাহিন খান নয়, তিনি যাকে বিয়ে করেছেন তার নাম জাহিন রহমান। তবে বিয়ে, সংসার নিয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে রাজি হননি এ অভিনেত্রী।

ষাট গম্বুজ বার্তা
ষাট গম্বুজ বার্তা